|

ভালুকায় বিয়ের প্রলোভনে কলেজ ছাত্রীর সাথে একাধিকবার শারিরিক সম্পর্ক, বিচার না পেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা

প্রকাশিতঃ ৭:৩২ অপরাহ্ণ | জুলাই ০২, ২০২০

আনোয়ার হোসেন তরফদার, ভালুকার খবর: ময়মনসিংহের ভালুকা উপজেলার হবিরবাড়ী ইউনিয়নের কাশর উত্তরপাড়া গ্রামে এক কলেজছাত্রীকে (২০) বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে দীর্ঘদিন যাবৎ শারিরিক সম্পর্ক করে বিয়ে না করা অভিযোগ পাওয়া গেছে।
এ ঘটনায় বিচার না পেয়ে ওই কলেজছাত্রী আত্মহত্যার চেষ্টা কওে ব্যর্থ হয়।

ঘটনাটি ধামাচাপা দিতে উঠে পড়ে লেগেছে স্থানীয় ইউপি সদস্য ও একটি প্রভাবশালী মহল। ওই নির্যাতিতা কলেজছাত্রী পার্শ্ববর্তী শ্রীপুর রহমত আলী সরকারি কলেজের অনার্সের ছাত্রী।

জানা যায়, উপজেলার হবিরবাড়ি ইউনিয়নের কাশর উত্তরপাড়া গ্রামের মৃত চাঁন মিয়া (সাবেক মেম্বার) এর ছেলে মঞ্জুরুল ইসলাম রানার সাথে দীর্ঘ ৪ বছর প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে ওই মেয়ের। পরে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে একাধিকবার শারীরিক সম্পর্ক করে লম্পট মঞ্জুরুল ইসলাম রানা। মুঞ্জুরুলের বাড়ির পাশের একটি খামারের রুমে মেয়েটির সাথে প্রায়ই শারিরিক সম্পর্কে লিপ্ত হতো। বুধবার সকালে মঞ্জুরুল ওই মেয়েকে নিয়ে সেখানে গেলে এলাকাবাসী টের পেয়ে বাহির দিয়ে দরজা আটকে দেয়। পরে পুলিশ গেলে মুঞ্জুরুলের মা কৌশলে তাকে পালিয়ে যেতে সাহায্য করে। পুলিশ মেয়েকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসলে হঠাৎ মেয়ে অসুস্থ হয়ে পড়লে হাসপাতালে ভর্তি হয়। পরে স্থানীয় কয়েকজন প্রভাবশালীরা মেয়ের পরিবারকে ফুসলিয়ে হাসপাতাল থেকে বাড়িতে নিয়ে যায়। কিন্তু পবর্তিতিতে কোন বিচার বা সুষ্টু ফয়সালা না করলে মেয়ে তাঁর গায়ে কেরোসিন ঢেলে আত্মহত্যার চেষ্টা করে।

ভালুকা মডেল থানার এস.আই জীবন বর্মণ জানান, ‘মেয়েকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসার পর হাসপাতালে ভর্তি করাই। পরে মেয়ে ও তার পরিবার থানায় না এসে কোন প্রকার অভিযোগ না দিয়ে বাড়িতে চয়ে যায়। মেয়ে বা মেয়ের পরিবার অভিযোগ দিলে সবধরনের আইনি সহযোগীতা প্রদান করতে আমরা প্রস্তুত।’

Print Friendly, PDF & Email